[Bubble Tea] বাবল টি : কি এই বাবল টি? জানুন এর উপকারিতা এবং ইতিহাস I Bubble Tea in Bengali

Share It!

Google আজ তার ডুডলের মাধ্যমে বাবল চা (Bubble Tea) উদযাপন করছে। এটি একটি বিশেষ ধরনের পানীয় যা তাইওয়ানে বিশেষভাবে জনপ্রিয়। যদিও করোনার সময় থেকেই এই চা বিশ্বব্যাপী খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তাহলে চলুন জেনে নেই এর উপকারিতা সম্পর্কে।

এখন পর্যন্ত আপনি নিশ্চয়ই গ্রিন টি, ব্ল্যাক টি, মিল্ক টি, হারবাল টি এবং ইয়েলো টি এর নাম শুনেছেন। তবে আজকের দিনে বাজারে একটি নতুন ধরণের চা এসেছে, যা প্রচুর ক্রেজ পাচ্ছে – এই চায়ের নাম বাবল চা (Bubble Tea)। যদিও এই চা এখন আলোচনার বিষয় হয়ে উঠছে, কিন্তু এর শিকড় অনেক পুরনো। এটি 1980 সালের দিকে তাইওয়ানে আবিষ্কৃত হয়েছিল, কিন্তু এখন ধীরে ধীরে বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

কেন একে বাবল চা বা Bubble Tea বলা হয় ?

এর উপাদানগুলির কারণে এটির এইরকম নামকরণ করা হয়েছে। একে মুক্তার দুধ চাও বলা হয়। এই চায়ের ক্ষেত্রে, ‘বুদবুদ’ বলতে এই চায়ে যোগ করা গোলাকার জেলির মতো সাবুর দানাকে বোঝায়। এর সাথে এতে কিছু বরফও যোগ করা হয়। 

এই বাবল চায়ের (Bubble Tea) স্বাদ সাধারণ চায়ের থেকে একেবারেই আলাদা এবং এটি তৈরিতে ব্যবহৃত ফল এবং সিরাপগুলির উপর নির্ভর করে। এটির স্বাদ মিষ্টি বা বাদামের মতো, কখনও কখনও এটি একটু তেতো বা টকও হতে পারে। গবেষকদের মতে, এক কাপ বাবল চা, যাকে  ট্যাপিওকা (Tapioca Starch) বলা হয়ে থাকে, এতে 299 থেকে 400 ক্যালোরি থাকতে পারে।

Read More:  বিশ্বের সবচেয়ে শান্তিপূর্ন প্রথম ১০ দেশ

আরো পড়ুন:  দাঁতকে ভালো রাখার ৭টি ঘরোয়া উপায়  

গুগল (Google) এই বাবল চা (Bubble Tea) এর জন্য কি করেছে ?

গুগল প্রায়ই আলোচনায় থাকে তার ডুডলের কারণে। তিনি তার ডুডলটি কোনো না কোনো বিশেষ দিন বা জিনিসকে উৎসর্গ করেন। এই ধারাবাহিকতায়, আজ আবারও গুগল তার ডুডলের জন্য শিরোনামে। আসলে, আজ গুগল একটি বিশেষ ডুডল শেয়ার করেছে। এই বিশেষ ডুডলের মাধ্যমে, গুগল সারা বিশ্বে বাবল চায়ের জনপ্রিয়তা উদযাপন করছে।

গুগল তার হোমপেজে একটি দুর্দান্ত অ্যানিমেশন ইন্টারেক্টিভ ডুডল গেম চালু করেছে, যার মাধ্যমে আপনি ডিজিটালভাবে বাবল চা তৈরি করতে পারেন। বুদবুদ চা হল এক ধরনের পানীয়, যা কোরানা মহামারীর সময় মানুষের মধ্যে খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল। করোনার সময় থেকে এটি অবিচ্ছিন্ন প্রবণতায় রয়েছে। তো চলুন জেনে নেই এই বিশেষ পানীয়টির ইতিহাস ও উপকারিতা সম্পর্কে।

আরো পড়ুন: খাওয়ার ইচ্ছা কি কমে গেছে ? তাহলে শরীরে কি এই পুষ্টির অভাব আছে

বাবল চায়ের ইতিহাস (History of Bubble Tea)

বুদ্বুদ চায়ের জনপ্রিয়তার আজ উদযাপনের মহান কারণ রয়েছে। আসলে, করোনার সময় এই পানীয়টির জনপ্রিয়তা এতটাই বেড়ে গিয়েছিল যে 2020 সালে এই দিনে এটিকে ইমোজি হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছিল। তবে এই পানীয়ের ইতিহাস বেশ পুরনো।বহু বছর ধরে তাইওয়ানে এই পানীয়টি খাওয়া হচ্ছে। বাবল চা পান করা শুরু হয়েছিল 1980 এর দশকে। এই চা সারা বিশ্বে পার্ল টি, ব্ল্যাক পার্ল টি, বিগ পার্ল, পার্ল শেক, বোবা নাই চাই নামেও পরিচিত। এর সাথে সাবুদানা যোগ করা হয়, তাই নাম বাবল চা। এর সাথে বরফও যোগ করা হয় এতে।

আরো পড়ুন: জাঙ্ক ফুড শরীরে কিরকম প্রভাব ফেলতে পারে – জানুন ৯টি সমস্যা

বুদবুদ চায়ের উপকারিতা (Benefits of Bubble Tea)

রক্তচাপ হ্রাস করার জন্য 

অনেক গবেষণায় এটা প্রকাশ পেয়েছে যে বাবল চায়ের গ্রিন বেস রক্তচাপ কমাতে খুবই উপকারী। এর পাশাপাশি, অনেক গুণে সমৃদ্ধ এই চা শরীরে উপস্থিত খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রাও কমাতে পারে, যা স্ট্রোক এবং হার্ট সংক্রান্ত গুরুতর রোগের সম্ভাবনাও কমায়।

Read More:  Super Blue Moon 2023: এক বিরল দৃশ্য, ১০-১২ বছরে একবার দেখা যায়

ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে

ক্যান্সার এমন একটি মারাত্মক রোগ, যা অনেক সময় প্রাণঘাতীও হতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে আপনি যদি বাবল চা পান করেন তবে তা ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়। এই চা ক্যান্সার কোষকে প্রভাবিত করে। এটি পান করলে লিভার, স্তন, প্রোস্টেট এবং কোলোরেক্টাল ক্যান্সারের মতো মারাত্মক রোগের ঝুঁকি কমে যায়।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী করার জন্য 

বুদবুদ চা তৈরিতে ব্যবহৃত গ্রিন টি বেস অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ। এই গুণের কারণে এই চা আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে। প্রকৃতপক্ষে, এই চা আমাদের অনাক্রম্যতা হ্রাসকারী ফ্রি রেডিকেল গুলিকে নির্মূল করে, যার ফলে অক্সিডেটিভ স্ট্রেসও কমায়। এছাড়াও এতে ব্যবহৃত ফল যেমন ব্লুবেরি, স্ট্রবেরি। এগুলোতে  প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি পাওয়া যায়, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী করতে সহায়ক।

তাৎক্ষণিক শক্তি বৃদ্ধি

বুদবুদ চায়ে উপস্থিত উচ্চ পরিমাণ চিনি তাৎক্ষণিক শক্তি বৃদ্ধিকারী হিসেবে কাজ করে। তাইওয়ানের খুব জনপ্রিয় এই হেলথ ড্রিংকটিতেও ক্যাফেইন ব্যবহার করা হয়, যা সারাদিনের ক্লান্তি দূর করে শক্তি বাড়াতে খুবই সহায়ক।

আরো পড়ুন: যোগের [YOGA] ২০টি উপকারিতা। ওজন কমাতে যোগার উপযোগিতা

আরো পড়ুন: পেটের মেদ কমানোর সেরা ১৫ টি উপায়

Leave a Comment